শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug

মাথা উঁচু করে বেঁচে থাকাকে যুদ্ধ হিসেবে নিয়েছি: জাফর মাহমুদ

নবযুগ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩:০৮, ২০ জানুয়ারি ২০২৩

মাথা উঁচু করে বেঁচে থাকাকে যুদ্ধ হিসেবে নিয়েছি: জাফর মাহমুদ

মাথা উঁচু করে বেঁচে থাকাকে যুদ্ধ হিসেবে নিয়েছি: জাফর মাহমুদ

ওজনপার্কে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে বাংলা সিডিপ্যাপ অ্যালেগ্রা হোম কেয়ার। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বর্ণ্যাঢ্য অনুষ্ঠানিকতায় ১১২৭ লিবার্টি এভিনিউতে বিশাল পরিসরে অফিসের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান প্রধান নির্বাহী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর মাহমুদ।

সময় ব্রুকলিনসহ নিউইয়র্কের বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন বয়সী অন্তত তিন শতাধিক বাংলাদেশি নারী পুরুষ সেখানে উপস্থিত ছিলেন। কংগ্রেসম্যান হাকিম জেফরিস, নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল মেম্বর  শেখর কৃষ্ণা নিউইয়র্ক স্টেটের অ্যাসেমবেলি উইমেন জেনিফার রাজকুমারের পক্ষ থেকে বিশেষ শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো হয় আবু জাফর মাহমুদের জন্য।

আনুষ্ঠানিকভাবে এই শুভেচ্ছাবার্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর মাহমুদের হাতে তুলে দেন নিউইয়র্ক নগরীতে বিভিন্ন সংবাদপত্রের সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ। উপস্থিত ছিলেন নিউইয়র্কের কাউন্সিল ডিস্ট্রিক্ট ৩৯ এর নির্বাচিত কাউন্সিল উইমেন শাহানা হানিফ। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলা চলচ্চিত্রের প্রখ্যাত অভিনেতা আহমেদ শরীফ, সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. এম ওয়াজেদ, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, টাইম টিভি ইউএসএ প্রধান নির্বাহী আবু তাহের, সাপ্তাহিক প্রবাস সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ, সাপ্তাহিক জন্মভূমি সম্পাদক রতন তালুকদার, সাপ্তাহিক নবযুগ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগরসহ নিউইয়র্কের বিভিন্ন গণমাধ্যমের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ। এসময় সর্বজন শ্রদ্ধেয়ব্যক্তিত্ব হুমায়ুন কবীর, ডা. মনজুর আহমেদ, মনিরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবর উদ্দিনসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ তাদের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।

উদ্বোধনী বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর মাহমুদ বলেন, আমার সার্থকতা, বাংলাদেশে আমরা সবাই পূর্বপুরুষদের কাছ থেকে সেবা ভালোবাসা পারস্পারিক সম্মানবোধ এবং সামাজিক মূল্যবোধ শিখেছি। আমরা সেটিই বহন করে চলেছি। এই আমেরিকান সমাজ এখন আমাদের নিয়েই। আমাদের জন্মভূমিতে মানুষের প্রতি মানুষের যে ভালোবাসা কল্যাণ কামনা, এটিই মানুষের মানবিক অস্তিত্ব। এই অস্তিত্ব নিয়েই বাংলাদেশি আমেরিকান সমাজ আমরা গড়ছি।

আবু জাফর মাহমুদ নিউইয়র্ক শহরে বাংলাদেশিদের মাঝে হোম কেয়ার সেবার গোড়ার দিকের কথা তুলে ধরে বলেন, যখন হোম কেয়ার শুরু করেছি, নিউইয়র্ক স্টেট এর সিলেবাস নিয়ে কাজ করা শুরু করেছি। শিক্ষাক্ষেত্রে কাজ করেছি। প্রশিক্ষণের ভেতর একটি দিন আলাদা করে আমি প্রশিক্ষণার্থীদের পারিবারিক মূল্যবোধের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছি। এটিই তাদের প্রশিক্ষণ। এটি ছাড়া আমাদের সন্তানদের বাংলাদেশি রাখতে পারবো না। এটি ছাড়া আমরা পরিবার প্রথা ধরে রাখতে পারবো না। আমাদের জাতিগত বৈশিষ্ট্য রক্ষা করেই আমেরিকার সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর যে প্রয়াস সেটিকে আমি যুদ্ধ হিসেবে নিয়েছি। এই যুদ্ধে আমাদের বিজয়ের বিকল্প নাই।

নতুন অফিস পরিসরের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এটি আমাদেরকাচারি ঘর এখানে আপনারা যেকোনো অনুষ্ঠান করবেন। আপনাদের প্রয়োজনে ব্যবহার করবেন। এর সঙ্গে বাণিজ্যের কোনো সম্পর্ক নাই। এখানে সপ্তাহে সাতদিন অবিরাম সেবা পাওয়ার ব্যবস্থা থাকবে।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশের কৃতি শ্যুটার এস এম ফেরদৌস সাংবাদিক আদিত্য শাহীন। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলা সিডিপ্যাপ অ্যালেগ্রা হোম কেয়ারের সেবা কার্যক্রম বিষয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

শেয়ার করুন: