শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug

ভারতে আন্ডারপাসে ডুবল গাড়ি, প্রাণ গেল তরুণীর

ঢাকা অফিস:

প্রকাশিত: ২৩:৪১, ২২ মে ২০২৩

ভারতে আন্ডারপাসে ডুবল গাড়ি, প্রাণ গেল তরুণীর

ছবি: সংগৃহীত

ভারতের কর্ণাটক প্রদেশের রাজধানী বেঙ্গালুরুর এক আন্ডারপাসে জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে একটি গাড়ি ডুবে যায়। এতে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকেলে বেঙ্গালুরুর কে আর সার্কেল আন্ডারপাসে এ ঘটনা ঘটে। বৃষ্টির পানিতে গাড়িটি ডুবে গেলে ওই তরুণী গাড়ি থেকে বের হতে পারেননি। সেখানেই শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যান তিনি।

নিহত ভানুরেখা (২২) তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা ইনফোসিসে কর্মরত ছিলেন। রোববার বিকেলে বেঙ্গালুরুতে প্রচুর বৃষ্টি হয়েছিল। শহরের বিভিন্ন জায়গায় পানি জমে গিয়েছিল। ওই সময় বৃষ্টি কিছুটা কমলে গাড়ি নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন ভানুরেখার পরিবার। কিন্তু আন্ডারপাসের নীচে গাড়িটি পানিতে ডুবে যায়। গাড়িতে থাকা সাতজনের মধ্যে ৬ জনকে উদ্ধার করা গেলেও একজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

ভানুরেখাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। কর্ণাটক প্রদেশের সদ্য নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধারামাইয়া হাসপাতালে যান। তিনি মৃতের পরিবারের জন্য ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেছেন।
সিদ্ধারামাইয়া বলেন, তাদের পরিবার বিজয়ওয়াড়া থেকে এসেছিল। তারা একটি গাড়ি ভাড়া করে শহর ঘুরতে বেরিয়েছিল। চালকসহ মোট সাতজন গাড়িতে ছিলেন। আন্ডারপাসে যাতে কেউ না যায় সে কারণ একটি ব্যারিকেড ছিল। কিন্তু প্রচন্ড বৃষ্টিতে সেই ব্যারিকেডটা পড়ে গিয়েছিল। চালক এই আন্ডারপাসে না গেলেও পারতেন।

জানা গেছে, গাড়িটি আন্ডারপাসে নেমে যাওয়ার পর পানি ক্রমশ বাড়তে থাকে। কী পরিমাণ পানি ছিল সেটা বুঝতে পারেননি চালক। একসময় এসইউভির কাঁচের ওপর পানি উঠে আসে। যাত্রীরা কিছুতেই দরজা খুলতে পারছিলেন না। আর সেখানেই ডুবে যান ওই তরুণী। ওই আন্ডারপাস প্রায় সাত থেকে আট মিটার গভীর ছিল। সেখানেই ডুবে যায় গাড়িটি।

 

তবে চালক জানিয়েছেন, একটা গাড়ি ও অটো আন্ডারপাসটি পেরিয়ে যায়। আরেকটি অটো ড্রাইভার আমার সামনে ছিল। কিন্তু সেটা মাঝপথে গিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ে। এদিকে পানির মধ্যে আচমকা গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। 

পুলিশ জানিয়েছে, গাড়িতে পানি ঢুকে যাওয়ার পরেই যাত্রীরা ভয় পেয়ে যায়। ৬ জনকে উদ্ধার করা হয়। কিন্তু ভানুরেখা পানি বেশি  খেয়ে ফেলেছিলেন। 

তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, এ ঘটনার পরেও ওই আন্ডারপাস দিয়ে গাড়ি চলাচল হচ্ছিল। কোনো ব্যারিকেড ছিল না।

শেয়ার করুন: