রোববার, ১৬ জুন ২০২৪

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug

ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন সন্দ্বীপ স্পোর্টিং ক্লাব

এনওয়াইপিডি যুব ফুটবল ও ক্রিকেট অনুষ্ঠিত

নবযুগ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:৪০, ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

এনওয়াইপিডি যুব ফুটবল ও ক্রিকেট অনুষ্ঠিত

এনওয়াইপিডি যুব ফুটবল ও ক্রিকেট অনুষ্ঠিত

নিউইর্য়ক পুলিশ বিভাগের অন্যতম ইউনিট কমিউনিটি অ্যাফের্য়াস ব্যুরো আয়োজিত এনওয়াইপিডি পুলিশ কমিশনার যুব ফুটবল ক্রিকেট লীগের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। খেলায় বাংলাদেশি যুব ক্রিকেট দল সন্দ্বীপ স্পোর্টিং ক্লাব উইকেটের ব্যবধানে ব্রুঙ্কস রয়েলসকে হারিয়ে প্রথমবারের মত এনওয়াইপিডি যুব ক্রিকেট লীগের শিরোপা জয়ের গৌরব অর্জন করে।

নিউইর্য়কের কুইন্সে অবস্থিত সাউথ জ্যামাইকার বেইসলে পন্ড পার্কের ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট স্থানীয় সময় সকাল টায় ক্রিকেট লীগের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এর আগের দিন একই স্থানে ফুটবল লীগের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। লীগে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ওয়েস্টইন্ডিজ গায়েনা, হিস্পানিক, মধ্যপ্রাচ্য, পূর্ব ইউরোপের বিভিন্ন দেশের মোট ১০ টি যুব ক্রিকেট দল টি যুব ফুটবল দল অংশ নেয়।

ক্রিকেট লীগের ১০ টি দলের মধ্যে ফাইনালে পৌছেঁ বাংলাদেশি অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল ব্রুঙ্কস রয়েলস এবং সন্দ্বীপ স্পোর্টিং ক্লাব।

খেলায় টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ব্রুঙ্কস রয়েলস ২০ ওভারে উইকেটে হারিয়ে ১০৮ রান করে। জবাবে ১০৯ রানের জয়ের টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমে ১৪. ওভারে উইকেটে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় সন্দ্বীপ স্পোটিং ক্লাব। ব্যক্তিগত উইকেট ৩৫ রান করে ফাইনালের ম্যান অব দ্য ম্যাচ হন সন্দ্বীপ স্পোটিং ক্লাবের খেলোয়াড় সাব্বির আহমেদ এবং ক্রিকেট লীগে ম্যান অব দ্য সিরিজ হন নিউইর্য়ক টাইগার্সের সাফওয়ান। সন্দ্বীপ স্পোটিং ক্লাবের অধিনায়ক তাছবীহ শাহরিয়ার বলেন, সন্দ্বীপ স্পোটিং ক্লাব উইকেটের ব্যবধানে ব্রংক্স রয়েলসের মত শক্ত প্রতিপক্ষকে হারিয়ে প্রথমবারের মত যুব ক্রিকেট লীগের শিরোপা জয়ের গৌরব অর্জন করায় আমি খুবই আনন্দিত। এদিকে ব্রুকলিন লায়ন্স - গোলে ড্রগলাম টাইগার্সকে হারিয়ে ফুটবল লীগের শিরোপা জিতে নেয়। ফুটবল লীগের ফাইনালে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হন ইউক্রেনীয় বংশোদ্ভূত আরসালান। ফুটবল ক্রিকেট লীগের বিজয়ী রার্নাসআপ দল, সেরা খেলোয়াড়দের হাতে ট্রফি তুলে দেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশেষ অতিথিবৃন্দরা। পুরস্কার বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন এনওয়াইপিডি কমিউনিটি অ্যাফের্য়াস ব্যুরোর ইন্সপেক্টর ভিক্টোরিয়া পেরি, ডেপুটি ইন্সপেক্টর ম্যাকল, পেট্ধেসাল ব্যুরো কুইন্স সাউথের এসিস্ট্যান্ট চীফ কেভিন উইলিয়ামস, পাবলিক স্কুল এথলেটিক লীগের ডেপুটি কমিশনার বেসাথ, ইয়থ সার্ভিসেস এন্ড কমিউনিটি এনগেঞ্জমেন্টের পরিচালক আলদিন ফস্টার। ইভেন্ট কো-অর্ডিনেটর হিসেবে হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন এনওয়াইপিডি ইমিগ্র্যান্ট আউটরীচ ইউনিটের একমাত্র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সার্জেন্ট মোহাম্মদ লতিফ, ডিটেক্টিভ কোয়াক, পুলিশ অফিসার আলগাহিতি।

আয়োজকের পক্ষ থেকে সুপারভাইজার মোহাম্মদ লতিফ বলেন, এনওয়াইপিডি কমিউনিটি অ্যাফের্য়াস ব্যুরোর অধীনে ইমিগ্র্যান্ট আউটরীচ ইউনিট দ্বারা আয়োজিত পুলিশ কমিশনার যুব ফুটবল ক্রিকেট লীগের যাত্রা শুরু হয় ২০০৭ সালে। প্রতিবছর জুলাই আগস্ট মাসে অনুষ্ঠিত টুর্ণামেন্টে ৩০০ থেকে ৪০০ তরুণ খেলোয়াড় অংশ নেয়। অংশগ্রহণকারীদের বয়সীমা ১৪ থেকে ১৯ বছর এবং তারা সকলেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা অভিবাসীদের সন্তান। গত ২৬ শে জুলাই টুর্ণামেন্টের খেলা শুরুর পর থেকে ইমিগ্র্যান্ট আউটরিচ ইউনিটের কর্মকর্তারা ক্রমাগত বিভিন্ন কমিউনিটির যুবকদের সাথে নিরিবিিছন্ন সংযোগ বজায় রেখে আসছিল। যুবকরা যেন একটি স্বা¯’্যকর জীবনধারা বজায় রাখে তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জীবন, নিরাপত্তা এবং মাদকের কুফল সর্ম্পকে গুরুত্বপূর্ণ টিপস অন্তর্ভুক্ত করা হয়। মাদকের ছোবলে যুবসমাজ আজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এজন্য মাদকমুক্ত যুবসমাজ গড়তে হলে ক্রীড়াঙ্গনকে বড় ভূমিকা রাখতে হবে।

শেয়ার করুন: