মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug

এবার যুদ্ধে জড়াচ্ছে তুরস্ক

প্রকাশিত: ২০:৩৯, ২১ নভেম্বর ২০২২

এবার যুদ্ধে জড়াচ্ছে তুরস্ক

এবার যুদ্ধে জড়াচ্ছে তুরস্ক

সিরিয়া থেকে ছোড়া রকেটে তুরস্কের তিন নাগরিকের প্রাণহানির পর যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে স্থল অভিযান শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে আঙ্কারা এবং কুর্দি যোদ্ধাদের প্রাণঘাতী হামলার পর সোমবার দেশটিতে স্থল অভিযান পরিচালনার এই ঘোষণা এসেছে।

কাতার থেকে তুরস্কে ফেরার সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এরদোয়ান বলেছেন, ‘এই অভিযানটি কেবল বিমান হামলার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। এ নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই। তিনি বলেছেন, আমাদের স্থল বাহিনী কী ধরনের শক্তি ব্যবহার করবে সেবিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, আমাদের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং চিফ অব স্টাফ একসাথে সিদ্ধান্ত নেবেন। তুরস্কের এই প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা ইতিমধ্যে সতর্ক করে দিয়েছি যে, যারা আমাদের ভূখণ্ড লঙ্ঘন করবে তাদের মূল্য চোকাতে হবে।

সোমবার সিরিয়া সীমান্ত লাগোয়া তুরস্কের কারকামিস জেলায় সিরিয়া থেকে ছোড়া রকেটের আঘাতে এক শিশুসহ তিনজনের প্রাণহানির পর এরদোয়ান এই ঘোষণা দিয়েছেন। তুরস্কের গণমাধ্যম বলছে, সোমবার সিরিয়া থেকে ছোড়া অন্তত পাঁচটি রকেট তুরস্কের কারকামিস জেলায় আঘাত হেনেছে। সেখানকার একটি স্কুল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে অন্তত তিনজন নিহত ও ছয়জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা আনাদোলু বলেছে, রকেট হামলায় সিরিয়ার জারাব্লুস শহরের সাথে সংযোগকারী সীমান্ত এলাকার কাছে তুরস্কের কারকামিস জেলায় দুটি বাড়ি এবং একটি ট্রাকও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আনাদোলুর প্রকাশ করা ছবিতে দেখা যায়, কারকামিসের একটি স্কুলের জানালা ভেঙে গেছে এবং একটি ট্রাকে আগুন জ্বলছে। এর আগে, রোববারও সিরিয়া থেকে ছোড়া রকেট সীমান্ত ক্রসিংয়ে আঘাত হানলে তুরস্কের ছয় পুলিশ সদস্য এবং দুই সেনা আহত হন।

রোববার তুরস্কের বিমান বাহিনী সিরিয়ায় কুর্দিশ পিপলস প্রোটেকশন ইউনিটের (ওয়াইপিজি) অবস্থানে বিমান হামলা চালানোর পর কুর্দি যোদ্ধারা উত্তর সিরিয়া থেকে রকেটগুলো ছুড়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। একই দিন উত্তর ইরাকেও কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) অবস্থানেও বিমান হামলা চালিয়েছে তুরস্ক। যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলছে, তুরস্কের রোববারের হামলায় সিরিয়ায় অন্তত ৩১ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

গত ১৩ নভেম্বর ইস্তাম্বুলে বোমা হামলায় অন্তত ৬ জন নিহত হয়। এই হামলায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি (পিকেকে) জড়িত বলে দাবি করে তুরস্ক। সিরিয়ায় ওয়াইপিজিকে পিকেকের সহযোগী হিসাবে বিবেচনা করে আঙ্কারা। তবে ইস্তাম্বুল হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছে পিকেকে।

শেয়ার করুন: