শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

সাপ্তাহিক নবযুগ :: Weekly Nobojug

সিডিপ্যাপে দুর্নীতির রেসিপি

হোম কেয়ার কর্মসূচি নিয়ে  তোপের মুখে হোকুল

নবযুগ রিপোর্ট

আপডেট: ০২:৫৫, ২০ এপ্রিল ২০২৪

হোম কেয়ার কর্মসূচি নিয়ে  তোপের মুখে হোকুল

ছবি: সংগৃহীত

নিউইয়র্কের কথিত দুর্নীতি-জর্জরিত আট বিলিয়ন ডলারের মেডিকেড হোম কেয়ার প্রোগ্রামের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের গভর্নর ক্যাথি হোকুল এবং স্টেট অ্যাসেম্বলি স্পিকার কার্ল হেস্টির নতুন পরিকল্পনার ব্যাপারে সমালোচকেরা ক্রুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

বলা হচ্ছে, গভর্নর এবং হেস্টি (ডি-ব্রনক্স) কনজ্যুমার ডাইরেক্টিভ পারসোন্যাল প্রোগ্রাম-সিডিপ্যাপে ব্যাপক সংস্কারের ব্যাপারে সমঝোতায় পৌঁছেছেন। উল্লেখ্য, এই কর্মসূচিতে নিউইয়র্কারদেরকে তাদের প্রিয়জনদের পরিচর্যার মাধ্যমে পারিশ্রমিক পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে রাজ্য পর্যায়ের বাজেটে আলোচনা হচ্ছে।
কর্মসূচিটি ন্যূনতম তদারকিতে মেডিকেড এবং সিডিপিএপি কেয়ারগিভারদের মধ্যে পেরোল অ্যাজেন্ট হিসেবে কাজ করা শত শত ব্যবসা ও অমুনাফামূলক প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে।
হোকুল ও হেস্টির নতুন যে প্রস্তাবটির কথা বলা হচ্ছে, তাতে ফিসক্যাল ইন্টারমেডিয়ারিস বা আরএফও হিসেবে পরিচিত অনিয়ন্ত্রিত মধ্যস্ততাকারীদের হাত থেকে মুক্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর বদলে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ একটি প্রতিষ্ঠানকে এই কাজের জন্য নিয়োগ দেবে।
তবে হোম কেয়ার কর্মী এবং কয়েকজন আইনপ্রণেতা বলছেন, এই পদক্ষেপ এ কর্মসূচিতে থাকা কথিত প্রতারণা ও অপব্যবহার দমনে কোনোই কার্যকর ভূমিকা পালন করবে না। তারা প্রশ্ন করেন, ব্যাপকভাবে ব্যয়বহুল কর্মসূচিতে এই পদক্ষেপ কিভাবে সাশ্রয় বয়ে আনবে।
অ্যাসেমব্লিম্যান রন কিম (ডি-কুইন্স) মিডিয়াকে বলেন, ‘তারা সমস্যার সমাধান না করে চরম প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে।’
কিম এক্স পোস্টে বলেন, ‘রাজ্যের উচিত হবে না মেগা-মনোপলি ব্যবস্থা সৃষ্টির মাধ্যমে ভাঙা বাজার মেরামত করা (যা রাজ্য সৃষ্টি করেছে)।
তিনি বলেন, ‘একজনকে বাছাই করাটা দুর্নীতির রেসিপির মতো।’
অর্ধ ডজনেরও বেশি সূত্র নিশ্চিত করেছে যে মেডিকেডের বিল প্রস্তুত করা এবং সিডিপ্যাপ কেয়ারগিভারদের পারিশ্রমিক প্রদানের জন্য একমাত্র আর্থিক ইন্টারমেডিয়ারি হিসেবে পিপিএল ইনক. নামের প্রতিষ্ঠানকে বাছাই করার কথা ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে। উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠানটি তাদের ওয়েবসাইটে নিজেদের পরিচয় দিয়েছে ‘ফিন্যান্সিয়াল ম্যানেজমেন্ট সার্ভিস কোম্পানি।’
এ ব্যাপারে মন্তব্য চাওয়া হলেও কোম্পানিটি তাতে সাড়া দেয়নি।
কনজ্যুমার ডাইরেক্টেড অ্যাকশন অব এনওয়াইয়ের নির্বাহী পরিচালক ব্রায়ান ও’ম্যালে এক বিবৃতিতে মিডিয়াকে বলেন, ‘যদিও অসংখ্য প্রমাণে দেখা যাচ্ছে যে লাখ লাখ শ্রমিক পারিশ্রমিক পাবে না, লাখ লাখ অক্ষম এবং প্রবীণ নিউইয়র্কার তাদের পরিষেবা হারাবে, তবুও তারা একটিমাত্র এফআইয়কে বেছে নেওয়ার পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন।’
নিউইয়র্ক হেলথ কেয়ার পলিসির সাথে পরিচিত বেশ কয়েকটি সূত্র মনে করে, প্রকাশ্য দরপত্র প্রক্রিয়া অবলম্বন না করেই স্বাস্থ্য বিভাগ ওই কোম্পানিকেই কাজটির জন্য বাছাই করে নেবে।
সমালোচকেরা কয়েক বিলিয়ন ডলারের প্রকল্প তদারকির জন্য কোনো সুষ্ঠু প্রক্রিয়া ছাড়াই একটিমাত্র প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেওয়ার নৈতিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। 
স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাব অনুযায়ী কর্মসূচিটি ২০২২ সালে বেড়ে হয়েছে ৭.৫ বিলিয়ন ডলারে। সমান অর্ধেক করে বহন করবে রাজ্য ও ফেডারেল সরকার।
চলতি বছরের প্রথম দিকে হোকুল তার বাজেট প্রস্তাবে এই কর্মসূচিতে ব্যাপকভাবে বাড়তে থাকা ব্যয় কমানোর ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।
তিনি ৭০০-এর বেশি ফিসক্যাল ইন্টারমেডিয়ারির ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার জন্য যে প্রস্তাব করেছিলেন, তাতে বলা হয়েছিল যে তাদেরকে প্রথমে অনুমোদন পেতে হবে, এবং সেটা হবে স্বাস্থ্য বিভাগের তদারকিতে।
সিডিপ্যাপ কেয়ারগিভাররা তাদের ন্যূনতম বেতনের ভিত্তিতে প্রাপ্ত অর্থ বাড়াতে অতিরিক্ত রাজ্য-নির্ধারিত বাড়তি অর্থ কমানোর কথাও বলেছিলেন গভর্নর। তবে সূত্র জানিয়েছে, আলোচনার অংশ হিসেবে হোকুল এখন ২০০ মিলিয়ন ডলার রক্ষার প্রস্তাবিত ব্যয় কমানোর ধারণাটি বাদ দিয়েছেন। 
হোম কেয়ার কর্মীরা ক্যাপিটলে সমাবেশ করেছেন, আইনপ্রণেতাদের বৃহস্পতিবারের কাজ শেষ করার পর তারা অবস্থান করেছেন এবং প্রস্তাবটি যাতে হোকুল বাতিল করেন, ওই দাবিতে তার অফিসের বাইরে ক্যাম্প করেছেন।
তবে হেস্টি মিডিয়াকে বলেছেন, কর্মসূচিটি যাতে আরো ভালোভাবে পরিচালিত হয় এবং লোকজন তাদের প্রয়োজনীয় পরিচর্যা লাভ করে তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা চেষ্টা করছি। 
 

শেয়ার করুন: